মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (BARI)

কৃষি গবেষণা কেন্দ্র, রাইখালী, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (http://www.bari.gov.bd/)এর একটি কেন্দ্র। ইহা ২৯ নং কৃষি পরিবেশিক অঞল এবং রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার কাপ্তাই উপজেলার অন্তর্ভূক্ত। যার মোট জমির পরিমান ৩৮.৯৫ হেক্টর এবং ১৯৭৬ ইং সাল থেকে গবেষণার মাধ্যমে আজ অবধি অত্র জেলার তথা সমগ্র পার্বত্য অঞলের কৃষি ও কৃষকের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য কাজ করে আসছে।

  • কী সেবা কীভাবে পাবেন
  • প্রদেয় সেবাসমুহের তালিকা
  • সিটিজেন চার্টার
  • সাধারণ তথ্য
  • সাংগঠনিক কাঠামো
  • কর্মকর্তাবৃন্দ
  • তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা
  • কর্মচারীবৃন্দ
  • বিজ্ঞপ্তি
  • ডাউনলোড
  • আইন ও সার্কুলার
  • ফটোগ্যালারি
  • প্রকল্পসমূহ
  • যোগাযোগ

এই কেন্দ্র পার্বত্য অঞলের কৃষকের মাঠের বিভিন্ন ফসলের চিহ্নিত সমস্যার সমাধান, জাত ও প্রযুক্তি উদ্ভাবন এবং কৃষিভিত্তিক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সেবা দিয়ে থাকে।এ পর্যন্ত এই কেন্দ্র গবেষনার মাধ্যমে পদ্ধতিগত ভাবে জাতীয় বীজ বোর্ডের মাধ্যমে ফল ও সবজীর মোট ১০ (দশ) টি জাত মুক্তায়িত করেছে। যার মধ্যে ফলের ০৫ (পাঁচ) টি ও সবজীর ০৫ (পাঁচ) টি।

এই জাতটি জাতীয় বীজ বোর্ড কতৃক ২০০২ সালে নিবন্ধিত করা হয়।

 

এটি একটি খাটো ও নিয়মিত স্বভাবের সীমের জাত।সীম নিয়মিতভাবে থোকায় থোকায় ধরে। প্রতিটি গাছে প্রায় গড়ে ১৮ টি সীম ধরে। সীম ১০-১২ সেমি লম্বা এবং ০.৭-০.৮ সেমি চওড়া হয়ে থাকে। ফল হাল্কা সবুজ বর্ণের হয়ে থাকে যা দেখতে খুবই আকর্ষনীয়। সীম ৬০-৬৫ দিনের মাঝে সংগ্রহ করার মতো হয়ে থাকে।

  

 

এই জাতটি জাতীয় বীজ বোর্ড কতৃক ২০০৪ সালে নিবন্ধিত করা হয়।

এটি একটি উচ্চ ফলনশীল বাংলা কলার জাত যা পাকা কলা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। পাকা ফলের রং উজ্জ্বল হলুদ। ফল সংগ্রহের সময় রোপনের ১২-১৩ মাসের মধ্যে। ফল মাঝারি আকারের।পাকা শাস মিষ্টি (টিএসএস ২৬%) ও সুস্বাদু। কাঁদি প্রতি কলার সংখ্যা প্রায় ১৪১ টি এবং কাদির ওজন প্রায় ২৩ কেজি। এর প্রতি হেক্টরে ফলন প্রায় ৪৩ টন।

 

 

 

 

 

 

এই জাতটি জাতীয় বীজ বোর্ড কতৃক ২০০৫ সালে নিবন্ধিত করা হয়।

এটি একটি উচ্চ ফলনশীল চম্পা কলার জাত যার প্রতি কাদিতে প্রায় ১৭৮ টি ফল ধরে এবং কাদির ওজন প্রায় ১৯ কেজি।ফল মাঝারি থেকে ছোট (৯৭ গ্রাম) এবং তক-মিষ্টি স্বাদের (টিএসএস ২০.৩%) ও উজ্জ্বল হলুদ বর্ণের। প্রতি হেক্টরে এর ফলন প্রায় ৪৭ টন এবং সাধারন রোগ বালাই সহনশীল।

 

এই জাতটি জাতীয় বীজ বোর্ড কতৃক ২০০৬ সালে নিবন্ধিত করা হয়।

প্রতি মঞ্জুরিতে ১০-১২ টি শিম ধরে। শিম লম্বায় ১০-১১ সেমি এবং পাশে ২-২.৫ সেমি হয়। শিমের ওজন ১০-১২ গ্রাম, প্রতি শিমে ৪-৫ টি বীজ থাকে। গাছ প্রতি ৪৫০-৫০০ টি শিম ধরে। ভাইরাস ও অন্যান্য রোগবালাই এবং পোকামাকড়ের আক্রমন কম হয়। মধ্য জুন থেকে মধ্য সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বীজ বপন করা যেতে পারে। নভেম্বর মাসের প্রথমেই শিম সংগ্রহ করা যায়। হেক্টর প্রতি ফলন ২০-২২ টন (৮০-৯০ কেজি/শতাংশ)।

 

এই জাতটি জাতীয় বীজ বোর্ড কতৃক ২০০৮ সালে নিবন্ধিত করা হয়।

এটি একটি উচ্চ ফলনশীল কামরাঙ্গার জাত। ফল সংগ্রহের সময় জানুয়ারী, জুলাই এবং অক্টোবর। ফল মাঝারী (১০০ গ্রাম), স্বাদে মিষ্টি (টিএসএস ৮.০৫%) ও ছোট বীজযুক্ত।  শাঁস কচকচে এবং রসালো। ভক্ষণযোগ্য অংশের পরিমান ৯৯%। এর ফলন প্রতি গাছে ২৬০ কেজি (৫৩ টন/হেক্টর)।

 

 

এই জাতটি জাতীয় বীজ বোর্ড কতৃক ২০১০ সালে নিবন্ধিত করা হয়।

এটি বহুভ্রুনিক একটি উচ্চ ফলনশীল আমের জাত। নিয়মিত ফল ধরে এবং মাঝারি থেকে নাবী জাত। ফল সংগ্রহের সময় জুনের শেষ সপ্তাহ। খোসা হলুদ বর্ণের এবং শাঁস উজ্জ্বল হলুদ বর্ণের হ্যে থাকে। ফল খুব মিষ্টি (টিএসএস ২২%)। খাবার উপযোগী অংশ ৭৩% এবং রপ্তানিযোগ্য। ফলন হেক্টরে ১৩-১৬ টন (৮ বছর বয়সী গাছে)।

 

এই জাতটি জাতীয় বীজ বোর্ড কতৃক ২০১১ সালে নিবন্ধিত করা হয়।

এটি খাটো ও খাড়া একটি সীমের জাত। এটি খাইস্যা হিসেবে খাওয়া হয়।প্রতি গাছে ৮-১০ টি শিম ধরে। শিম লম্বায় ১৪-১৬ সেমি এবং চওড়ায় ১.০-১.৩ সেমি হয়ে থাকে। বীজের ফলন হেক্টরে ৫ টন হয়ে থাকে।রোপনের ৮০-৮৫ দিনের মাথায় বীজ খাইস্যা হিসেবে খাওয়ার উপযোগী হয়।

 

 

 

 

 

 

এই জাতটি জাতীয় বীজ বোর্ড কতৃক ২০০১১ সালে নিবন্ধিত করা হয়।

টি  একটি খাটো ও খারা সীমের জাত। উচ্চতায় মাত্র ১০০-১১০ সেমি হয়ে থাকে যা মাঁচা ছাড়াই জন্মানো যায়। বীজ বপন থেকে ফসল উত্তোলন পর্যন্ত ৬০-৬৫ দিন সময় লাগে।এটি সারা বছর চাষযোগ্য। শিম তলোয়ারের মতো, ২০-২৪ সেমি লম্বা এবং ১.৮-২.০ সেমি চওড়া হয়। হেক্টর প্রতি শিমের ফলন ১৮-২০ টন।

 

এই জাতটি জাতীয় বীজ বোর্ড কতৃক ২০১১ সালে নিবন্ধিত করা হয়।

এটি একটি বহুবর্ষজীবী লতানো সবজী যা সারা বছর ফলন দিয়ে থাকে। এর ফল সবজী হিসেবে রান্না করে বা শরবত হিসেবে খাওয়া যায়। একই লতা থেকে প্রায় ১২-১৫ বছর ফলন পাওয়া যায়।  ফল লম্বায় ১২-১৪ সেমি এবং চওড়ায় ৮.৫-৯.০ সেমি। ফলন প্রতি হেক্টরে ৩০-৩৫ টন। সাধারনত লতা লাগানোর ৫০-৫৫ দিনের মাথায় প্রথম ফলন পাওয়া যায়।

    

 

এই জাতটি জাতীয় বীজ বোর্ড কতৃক ২০১২ সালে নিবন্ধিত করা হয়।

টি উচ্চ ফলনশীল, প্রায় সারা বছর নিয়মিত ফল দানকারী জাত। ফল মাঝারী (১৩০-১৪০ গ্রাম), পাকা ফল দেখতে আকর্ষনীয় হালকা বা কমলা-হলুদ রঙের, রসালো এবং মিষ্টি (টিএসএস ৭-৮%), ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ (৪৫ মিগ্রা/১০০মিলি রস)। বীজ অল্প (৪-৫ টি), খোসা মধ্যম প্রুরু, খাদ্যাপযোগী অংশ ৬০-৬৫%। গাছপ্রতি বছরে ফলের সংখ্যা ৩০০-৫৮০ টি এবং ওজন ৭০-৭৫ কেজি (ফলন ৩৫-৪০ টন/হেক্টর)।

 

অত্রকেন্দ্রথেকেআরওজাতহিসেবেঅবমুক্তায়নেরজন্যপ্রস্তাবিতফলওসবজীফসলসমূহঃ

১।ফ্রেন্সবীন(খাইস্যা)

২।মিষ্টিকরমচা

৩।মিষ্টিজলপাই

৪।হানিডিউ/চিনাল

৫।বারমাসীসজিনা

৭।জামরুল

 

অত্রকেন্দ্রপার্বত্যএলাকারবিভিন্নফসলেরচাষাবাদপদ্ধতিরউপরগবেষণাকরেএকাধিকপ্রযুক্তিউদ্ভাবনকরেছেযানিম্নরূপঃ

                Title

               Key  characteristics

 

Horticulture Division

1.      Bunch thinning to increase the yield of coconut.

 

 

 

2.      Application of boron and nitrogen to increase the growth and yield of broccoli removing hollow stem.

 

 

 

3.      Irrigation and mulch on the yield and quality of seedless lemon.

 

 

 

4.      Flower thinning in main season to increase the yield of seedless lemon in off season

 

 

5.      Effect of spacing and planting time on Bushbean

 

 

 

6.    Effect of N, P and K on the yield and profitability of Bushbean.

 

7.    Effect of irrigation and mulch on the performance of Bushbean

 

 

8.    Effect of seed rate on the yield of Bilati dhania

 

9.    Effect of shade on the yield of Bilati dhania

 

 

 

 

10.Effect of pseudostem retention on banana varieties.

 

 

11.  Performance of Cauliflower varieties in the hilly areas.

 

 

 

 

 

12.  Effect of seed rate on growth and yield of Bilatidhonia

 

13.  Effect of shade system on growth and yield of Bilatidhonia

 

14.  Effect of nitrogen and boron on the growth and yield of broccoli

 

15.  Effect of mulching and depth of planting on rainfed production in the hilly areas

 

 

16.  Response of lettuce to split application of nitrogen in Rangamati

 

 

17.  Response of broccoli varieties to boron fertilization

 

18.  Effect of nitrogen levels and foliage cutting on the yield of coriander

 

 

19.  Response to plant spacing and picking interval of okra var. BARI Dherosh –1 in hilly area

 

 

 

20.  Effect of irrigation and mulching on the growth and yield of cauliflower

 

21.  Effect of mulching and pruning on the growth and yield of pear

 

 

 

 

 

1. Bunch thinning at 1:3 ratio produced 18 bunches /plant where control plant 15. Thinned plant produced 146 fruit whereas control plant only 98 fruits.

 

2. Boron (1.5 kg/ha) and nitrogen (100 kg/ha) combination gives satisfactory result producing 15.32 t/ha card with zero hollow stem, whereas 2.11 t/ha with 345.3 sq. mm area of hollow stem occurred without boron application.

 

3. 20 liter/plant irrigation at 15 days interval from November-March and 6 kg dried straw/plant can be produce highest number of fruits/ plant (40% more than the control).

 

4. 25% flower thinning depending on the total flowers per inflorescence in April and May can increase about 25% of  the lemon yield in the off season.

 

 

5. The optimum spacing of Bushbean is 25×10cm and suitable planting time November for higher yield and profit of Bushbean

 

6. N, P, K, @ 75, 100 and 90 kg/ha gave the maximum yield and profit of Bushbean cultivation.

 

7. Weekly light irrigation  with straw mulch gave maximum pod and seed yield of bushbean.

 

 

8. 40 kg seed /ha gave maximum yield and profit of Bilati dhania

 

9. Shade material does affect on the yield and profit of Bilati dhania.  Only 10% scattered /defused sunlight is enough for Bilati dhania production. Excess sunlight induce flowering and deteriorate quality.

 

10. Pseudostem retention does affect on the yield of banana. Bangla kala gave maximum yield and profit followed by Anazi.

 

11. White shot and Balaka is suitable for extreme early (September) and White cotessa and BARI Phoolcopy-1(Rupa) is suitable for early while Bailtali and Rupa is suitable for mid season cultivation for maximum profit.

 

12. Seed rate @ 40 kg/ha gave highest yield of Bilatidhonia

 

13. Shade provided by Coconut leaf or Sun grass produced the maximum yield and profitability of Bilatidhonia

 

14. N and B @ 100 and 1.5 kg/ha gave the highest yield of Broccoli and reduced the incidence of hollowstem of broccoli.

 

15. Mulching @ 10 t/ha with teak leaf/sun grass to the turmeric plant at the depth of 8-10 cm gave the highest yield of turmeric in rain fed condition in the hilly areas

 

16. N @ 150 kg/ha applied in two splits  gave the maximum yield of lettuce. The variety Green Wave performed best in Hilly areas.

 

17. B @ 1.5 kg/ha produced the highest yield of Green Sprouting variety

 

 

18. N @ 60 kg/ha and one cutting combinedly gave the maximum seed yield whereas 90 kg N/ha produced the highest yield of green leaves of Coriander

 

19.Harvesting fruit at one day’s interval planted at 60 x 30 cm spacing gave the highest yield of lady’s finger

 

 

 

 

20. Irrigation at 7 days interval and mulching with sungrass gave the highest yield of Cauliflower

 

22.  75% Pruning practice by cuttingg back of  30  cm of pear branch with mulching by straw gave the highest yield and quality of pear fruit

 

 

Agronomy Division

1.      Ginger-legumes intercropping for higher yield and profitable cultivation in the hilly region

 

 

2.      Turmeric-legumes intercropping for better yield and higher monitory advantages.

 

3.      Short duration pigeonpea (ICPL 86012) as a prospectus pulse crop in the hilly region.

 

 

4.      Cultivation of sugarcane-cucurbits as a profitable intercropping in the hilly region.

 

 

 

5.      Tomato-maize intercropping as a profitable cultivation in the hilly region.

 

 

6.      Storage of vines to maximize sweet potato yield.

 

 

 

7.      Cultivation of BARI tomato - 6 variety in the summer season at eastern hilly region.

 

 

 

 

 

 

1. In intercropping situation, ginger produced higher yield than sole crop. Higher monitory advantages can be availed and soil erosion can be checked. Benefit cost ratio - 4.06 to 4.76.

 

2. In intercropping situation, ginger produced higher yield than sole crop. Soil Benefit cost ratio -3.04 to 3.53.                              

 

 

3. Dwarf type, early maturity, can be sown in the late rainy season. Benefit cost ratio -2.35.    

            

 

                                             

4. Yield obtained from sugarcane-bottle gourd combination was 45.8 t/ha and 84.76 t/ha, respectively and for sugarcane-pumpkin combination was 46.6 t/ha and 82.7 t/ha, respectively. Benefit cost ratio-3 to 4.0.

 

5. Inclusion of 10-20% maize population in 100% tomato field is profitable. Benefit cost ratio-4.34 to 4.38.

 

 

6. Vine cutting stored for 2-4 days before planting significantly out-yielded (45-47 t/ha) than those planted the same day (42 t/ha). erosion can be checked.

 

7. BARI tomato - 6 variety can be cultivated successfully in the eastern hilly region.

Soil Science Division

1. Effect of N, P and K on the  

      yield and profitabilityof 

      Bilatidhonia

 

2. Effect of N, P and K on the

    performance of Olkachu  

    (Amorphophallus

    campanulatus Blume) in the

    Chittagong hilly region.

 

3. Effects of N, P, K and 

    Cowdung on the Dasheen

    (Colocasia esculenta var.

    esculenta.Scott) production

    in the eastern hilly region.

 

1. N, P, K, @ 169, 150 and 175 kg/ha gave the maximum yield and profit in Bilati dhania cultivation.

 

2. N, P, K, @ 135, 48 and 180 kg/ha gave the maximum yield and profit in Olkachu cultivation

 

 

 

3. N, P, K and Cowdung @ 100, 75,180 kg/ha and 10t/ha gave the maximum yield and profit in Dasheen cultivation

 

     

 

 

 

এছাড়া বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কতৃক অনুমোদিত গবেষণা কর্মসূচী অনুযায়ী গবেষণা কার্যক্রম চালানো হয়। উদ্ভাবিত বিভিন্ন জাতের ফলের মাতৃবাগান রক্ষনাবেক্ষণ, ব্যবস্থাপনা ও সবজীর প্রজনন বীজ উৎপাদন করা হয়ে থাকে। কেন্দ্র থেকে কৃষক এবং কৃষি কাজের প্রতি আগ্রহী ব্যক্তিবর্গের চাহিদা অনুযায়ী বীজ, চারা/কলম নির্দিষ্ট মূল্যে অত্র কেন্দ্রের নার্সারী বিক্রয় কেন্দ্র থেকে সরবরাহ ক্রয় হয়ে থাকে।অত্র কেন্দ্রের গবেষণা মাঠে ফলের নিম্নলিখিত জাতের মাতৃবাগান রক্ষনাবেক্ষণ ও ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়ঃ

ফসলের নাম

জাতের নাম

আম

পেয়ারা

মাল্টা

নারিকেল

কমলা

মিষ্টি লেবু

কলা

লিচু

কামরাঙ্গা

বারি আম-১,২,৩,৪,৫,৬,৭ ও ৮

বারি পেয়ারা-২ ও ৩

বারি মাল্টা-১

বারি নারিকেল-১

বারি কমলা-১

বারি মিষ্টি লেবু-১

বারি কলা-৩ ও ৪

বারি লিচু-৩ ও কমার্শিয়াল জাত চায়না-৩

বারি কামরাঙ্গা-২

 

 

এছাড়াও অত্র কেন্দ্র থেকে প্রযুক্তি হস্তান্তরের আওতায় বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট উদ্ভাবিত বিভিন্ন প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে অত্র এলাকার জুমিয়া, কৃষক, উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা, কৃষি কর্মকর্তা, কৃষি কাজের সাথে জড়িত এনজিও ও কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়ে থাকে। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড ও বারি- এর অর্থায়নে বর্তমানে আবাসিক সুবিধাসহ দুইটি প্রশিক্ষণ ভবন নির্মাণাধীন রয়েছে যেখানে সারা বছর সব ধরনের কৃষির উপর প্রশিক্ষণ, সেমিনার, সিম্পোজিয়াম ও কর্মশালা চলতে থাকবে।

 

 

  • ফসলের উন্নত জাত উদ্ভাবন ও উন্নয়ন এবং যথাযথ মুল্যায়নের পর তা সুপারিশকরণ।
  • বিভিন্ন ফসলের উচ্চ ফলনের জন্য চাষাবাদ পদ্ধতি এবং পানি ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন।
  • বিভিন্ন ফসলের পুষ্টির চাহিদা নিরুপণ, মৃত্তিকার পুষ্টি ঊপাদান মুল্যায়ন এবং সার ব্যবস্থাপনা পদ্ধতির উন্নয়ন।
  • বিভিন্ন পোকামাকড় ও রোগবালাই দ্বারা ফসল ও উৎপাদিত দ্রব্যের ক্ষতির পরিমান নিরূপণ এবং যুক্তিসংগত বালাই ব্যাবস্থপনার উন্নয়ন।
  • শস্যের ফলন এবং কৃষকের আয় বৃদ্ধির জন্য শস্য চাষ পদ্ধতির উন্নয়ন।
 

দেশের দক্ষিন-পশ্চিমাঞলীয় পার্বত্য এলাকার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কতৃক উদ্ভাবিত নতুন প্রযুক্তি সমূহের জন্য খামার পদ্ধতির মূল্যায়ণ।

ছবি নাম মোবাইল
ড. এ এস এম হারুনর রশীদ ০১৭১১৩৯৮৬৭৪, ০১৫৫৮৪২২৪০০
শ্যাম প্রসাদ চাকমা ০১৫৫৪৩১২৪১৫, ০১৮৩০৪২৪৪২২
কামরুল হাসান ০১৭৩৬২১৮৫৯৭, ০১৮১৩২০৭৮০৩

ছবি নাম মোবাইল
ড. এ এস এম হারুনর রশীদ ০১৭১১৩৯৮৬৭৪, ০১৫৫৮৪২২৪০০

রাইখালী কৃষি গবেষণা কেন্দ্র সব সময় নতুন নতুন ফসল/জাত উদ্ভাবনে নিয়োজিত। একেন্দ্র নতুন কোন ফসলের জাত উদ্ভাবন ও তার উৎপাদন প্রক্রিয়া সমন্ধে জনগণকে জানাতে সাহায্য করে।

অত্রকেন্দ্রথেকেআরওজাতহিসেবেঅবমুক্তায়নেরজন্যপ্রস্তাবিতফলওসবজীফসলসমূহঃ

১।ফ্রেন্সবীন(খাইস্যা)

২।মিষ্টিকরমচা

৩।মিষ্টিজলপাই

৪।হানিডিউ/চিনাল

৫।বারমাসীসজিনা

৭।জামরুল

ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা,

কৃষি গবেষণা কেন্দ্র,

রাইখালী, চন্দ্রঘোনা, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা।

ফোনঃ ০৪৪৩৪৪৯৪৬৬৬

ঢাকা-কাপ্তাই (বাস), ঢাকা-চট্টগ্রাম-কাপ্তাই (বাস), ঢাকা-চট্টগ্রাম (ট্রেন)-কাপ্তাই (বাস), খাগড়াছড়ি-রাঙ্গামাটি-রাজস্থলী (বাস), খাগড়াছড়ি-চট্টগ্রাম-কাপ্তাই (বাস), বান্দরবান-রাজস্থলী-রাঙ্গামাটি (বাস) রুটে এসে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার লিচুবাগানে নেমে রাইখালীর কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে আসা যাবে। ঢাকা থেকে সরাসরি ডলফিন, এস আলম, শ্যামলী বাসে লিচুবাগান আসা যায়। লিচু বাগানের দুভাষী বাজার ঘাট হতে নৌকা যোগে কর্ণফুলী নদী পাড় হয়ে রাইখালী কৃষি গণেষণা কেন্দ্রে পৌছা যায়।